মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৭ পূর্বাহ্ন

প্রেমিকার ছবি ভাইরাল-প্রেমিক আটক. অতপর…

admin
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৫৯৩ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নাটোরের বড়াইগ্রামের মানিকপুর এলাকায় প্রেমিকার সাথে আপত্তিকর ছবি ভাইরাল হওয়ার পর প্রেমিক মিঠুনকে আটকের একদিন পর ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় এলাকায় নানা গুঞ্জন বিরাজ করছে । এদিকে লোক লজ্জার ভয়ে স্কুলে যাতায়াত বন্ধ করে দিয়েছে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী। মিঠুন উপজেলার সরিষাহাট গ্রামের মিরাজুল ইসলামের ছেলে। তবে পুলিশের দাবী, কোন বাদী না থাকায় মিঠুনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
ভুক্তভোগী ছাত্রী ও এলাকাবাসী জানান, বড়াইগ্রাম অনার্স কলেজের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী মিঠুনের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে স্কুল পড়–য়া ওই ছাত্রীর। সম্প্রতি প্রেমিক মিঠুন ওই ছাত্রীকে বেড়ানোর জন্য নিয়ে যায় গুরুদাসপুর উপজেলার বিলসা এলাকায়। সেখানে মিঠুন ঘোরাফেরা কালে তার বন্ধুকে দিয়ে কৌশলে ছবি তোলে। এর মধ্যে কিছু আপত্তিকর ছবি মিঠুনের বন্ধু শাকিবুল তার ফেসবুক আইডিতে পোস্ট করে। ছবিটি দ্রæত ভাইরাল হয়ে গেলে স্কুল যাতায়াত বন্ধ করে দেয় নবম শ্রেনীতে পড়ুয়া ্ওই ছাত্রী।
এছাড়া এলাকাবাসী জানায়, আত্মহননের চেষ্টাও করে সে। বিষয়টি আইন শৃঙখলা বাহিনীর কাছে পৌছলে গত বুধবার মিঠুনকে আটক করে বড়াইগ্রাম থানা পুলিশ। একদিন আটক রাখার পর বৃহস্পতিবার মিঠুনের বিরুদ্ধে কোন আইনী ব্যবস্থা না নিয়ে ছেড়ে দেয় পুলিশ। এরপরই এনিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। জানা গেছে মিঠুনের সরকারী চাকুরি বা ভবিষ্যৎ জীবনের কথা চিন্তা করে বড় ধরনের কোন সুবিধা দিয়ে বিষয়টির মিমাংসা করা হয়েছে।
সংবাদকর্মিদের অনেকে বিষয়টি জানালে এ ব্যাপারে ওসির সাথে যোগাযোগ করা হয়।
এ ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিলীপ কুমার দাস বলেন, এ ঘটনায় কোন পক্ষের অভিযোগ না থাকায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। কেউ অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এদিকে ভুক্তভোগী ছাত্রীর স্কুলের প্রধানশিক্ষক খাদেমুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি তার নলেজে নেই। স্কুলে এখনো পুরো ক্লাস শুরু না হওয়ায় সব শিক্ষার্থী স্কুলে নিয়মিত নয়।
এদিকে বড়াইগ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোমিন আলী বলেন, এটা তেমন কোন ব্যাপার না। তারা বেড়াতে গিয়ে খাওয়া দাওয়ার সময় ছবি তুলেছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..